Copyright 2017 - Custom text here

মাম্পস

User Rating: 0 / 5

Star InactiveStar InactiveStar InactiveStar InactiveStar Inactive
 

 

মাম্পস ( Mumps) হলো লালাগ্রন্থির  মাম্পস নামক একধরনের ভাইরাস সংক্রমণে সৃষ্ট প্রদাহ।

ছড়ানোর উপায়:

মাম্পস সাধারণত  হাঁচি-কাশির মাধ্যমে  ছড়ায় । 

এ রোগে ছোটদের আক্রান্ত হতে বেশি দেখা যায়।

তবে  বড়দের যে মাম্পস হয় না , এমনটি নয় । 

লক্ষণসমূহ 

 এর ফলে জ্বর, মাথাব্যথা হয় ।

গলা ও কানের নিচে দুই পাশে লালাগ্রন্থি ফুলে যায় । 

খাবার গিলতে ব্যথা হতে পারে।
কিশোর-তরুণদের মাম্পস হলে ৩০ শতাংশ ক্ষেত্রে সঙ্গে শুক্রাশয়ের প্রদাহ থাকতে পারে।

আবার নারীদের মাম্পস হলে একই সঙ্গে স্তনগ্রন্থিতে ব্যথা ও প্রদাহ হতে পারে। 

জটিলতা :

সঠিক চিকিৎসা না হলে এ থেকে পরে জটিলতা হতে পারে। সাধারণত 

মাম্পস নিজে নিজেই সেরে যায়। তবে কিছু ক্ষেত্রে জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে।

যেমন:

এনকেফালাইটিস

শ্রবণশক্তিতে সমস্যা

অগ্ন্যাশয়ের প্রদাহ।

গর্ভবতী নারীর মাম্পস হলে এ থেকে গর্ভপাত হওয়ারও আশঙ্কা আছে।

চিকিৎসা
মাম্পস হলে প্রচুর পরিমাণে পানি খেতে হবে। মিষ্টি পানীয় বা জুস ইত্যাদি না খাওয়াই ভালো।

কারণ এগুলো লালাগ্রন্থিকে উদ্দীপ্ত করে ব্যথা বৃদ্ধি করে থাকে । তরল বা আধা তরল নরম খাবার খেলে ব্যথা কম হবে।

ব্যথা কমানোর জন্য ফোলা জায়গার উপর বরফ বা ঠান্ডা সেঁক দিতে হবে। 

ব্যথা ও জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল খেতে হবে।

হালকা গরম লবণপানি দিয়ে গড়গড়া করুন।

বিশ্রামে থাকুন । সাধারণত এক থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে এ রোগ সম্পূর্ণ আরোগ্য হয়ে যায় । 

পুরুষদের মাম্পসের সঙ্গে শুক্রাশয়ে ব্যথা থাকলে এবং নারীদের গর্ভকালীন সময়ে মাম্পস হলে

চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে । 

f t g m

প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী : ডা: মো: হেলাল উদ্দিন

ব্যবহারের শর্তাবলী                                               গোপনীয়তার নীতি