Copyright 2017 - Custom text here

জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম

User Rating: 0 / 5

Star InactiveStar InactiveStar InactiveStar InactiveStar Inactive
 

নাম : জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম

ইংরেজি বানান : National Prof. Dr. Nurul Islam

পেশা :  অধ্যাপনা   ও   চিকিৎসক

পদক : স্বাধীনতা পদক ( ১৯৯৭  ) 

অবস্হান : ঢাকা

বিচরণ ক্ষেত্র : মেডিসিন

 

 

অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম  বাংলাদেশের একজন প্রথিতযশা    চিকিৎসক    যিনি চিকিৎসাশাস্ত্রে অধ্যাপনার জন্য

বিশেষ খ্যাতিমান ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক দেশের জাতীয় অধ্যাপক নির্বাচিত হয়েছিলেন।

 

 

জন্ম ও শিক্ষা : 

অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলামের জন্ম ১৯২৮ সালের ১ এপ্রিল চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইশ থানার মোহাস্মদপুর গ্রামে। তাঁর পিতার

নাম সৈয়দুর রহমান,  মায়ের নাম গুলমেহের। তিন ভাই ও পাঁচ বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন সবার ছোট৷ গাছবাড়িয়া উচ্চ

বিদ্যালয় থেকে তিনি ১৯৪৩ সালে এসএসসি পাস করেন ৷ এমবিবিএস পরীক্ষা দেন ১৯৫০ সালে৷

কর্ম জীবন:

নুরুল ইসলাম পাকিস্তান সিভিল সার্ভিসের ইন্টারভিউ দিয়ে ১৯৫২ সালে মেধা তালিকার শীর্ষে থেকে

  ঢাকা মেডিকেল কলেজের  বক্ষব্যাধি বিভাগের আউটডোরে নিয়োগ পান৷ ১৯৫৪ সালের পয়লা এপ্রিল

লন্ডনের হুইটিংটন হাসপাতালে এমআরসিপি কোর্স শুরু হয়৷ মেডিসিনে প্রশিক্ষণ পাওয়ার পর ১৯৫৫

সালের জানুয়ারি মাসে ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয়ের টিডিডি কোর্সে যোগদান করেন ও সে

বছর জুনে এ কোর্স সমাপ্ত করেন।  ১৯৫৬ সালের মার্চ মাসে তিনি দেশে ফিরে এসে আবার   ঢাকা মেডিকেল কলেজের

বহির্বিভাগের দায়িত্ব পালন করতে থাকেন ৷ ছয়মাস এভাবে কাজ করার পর মিটফোর্ড মেডিকেল স্কুলে মেডিসিনের

লেকচারার হিসেবে তিনি নিযুক্ত হন৷ একই সাথে টিবি ওয়ার্ডের দায়িত্বও পালন করেন তিনি। ১৯৫৮ সালে তিনি

ঢাকা মেডিকেল কলেজে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করেন।

 

১৯৬২ সালে তিনি   চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে   যোগদান করেন।  ভিজিটিং অধ্যাপক হিসেবে বিলাতে কাজ

করে ১৯৬৪ সালের মাঝামাঝি দেশে ফিরে আসেন৷ চাকরি জীবনের অল্প সময় (দুবছর) নিজ জেলা চট্টগ্রামে অবস্থান করলেও

সেখানকার স্মৃতি তাঁর কাছে মধুময় রয়েছে৷

 

ইনস্টিটিউট অব পোস্ট গ্র্যাজুয়েট মেডিকেল রিচার্স ( আইপিজিএমআর ) :

১৯৬৫ সালে  ইনস্টিটিউট অব পোস্ট গ্র্যাজুয়েট মেডিকেল রিচার্সে ( আইপিজিএমআর )  যুগ্ম পরিচালক

 হিসেবে নিয়োগ পান৷ ১৯৮৭ সালে পিজি হাসপাতালের পরিচালক  হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন৷

তিনি সুদীর্ঘ ২৩  বছর ধরে এই প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষা ও স্বাস্হ্যের  মান উন্নতকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন । 

রাষ্ট্রপতির ব্যক্তিগত চিকিৎসক :

তিনি বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যক্তিগত চিকিৎসক  হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৯৭

খ্রিস্টাব্দে তাঁকে স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার প্রদান করা হয়।

 

পুরস্কার ও সম্মাননা :

    প্রেসিডেন্টস গোল্ড মেডেল, (১৯৬৩)

    সিতার ই ইমতিয়াজ পদক, (১৯৭০)

    বাংলা একাডেমী অব সায়েন্স গোল্ড মেডেল, (১৯৮২)

    কলকতা মেডিকেল কলেজ ফর এম এন ডি ওরেশন অন প্রেসক্রিপশন অ্যান্ড প্রফেশনালস, (১৯৮৫)

    বঙ্গবন্ধু একাডেমী অ্যাওয়ার্ড, (১৯৮৬)

    ডব্লিউএইচও অ্যাওয়ার্ড ফর টোবাকো কন্ট্রোল, (১৯৯০ ও ১৯৯২)

    ভাসানী মেমোরিয়াল গোল্ড মেডেল, (১৯৯৩)

    ইবনে সিনা মেডেল, (১৯৯৫)

    স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার, (১৯৯৭) 

f t g m

প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী : ডা: মো: হেলাল উদ্দিন

ব্যবহারের শর্তাবলী                                               গোপনীয়তার নীতি